নতুন প্রযুক্তিতে ইন্টারনেট পাওয়া যাবে কম দামে

307

প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে সহজে ও স্বল্প মূল্যে ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে নতুন একটি প্রযুক্তি উদ্ভাবনে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠান এটিঅ্যান্ডটি। গেল ২ বছর ধরে তারা ‘এয়ারগিগ’ নামের একটি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে, যা ব্যবহার করে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও পৌঁছে দেয়া যাবে গিগাবিট গতির ইন্টারনেট। আর সে জন্য প্রয়োজন হবে শুধু বিদ্যুৎ সংযোগ।

এই প্রযুক্তিতে স্যাটেলাইটের চেয়ে কম মূল্যে ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে বলে মনে করেন প্রতিষ্ঠানটির গবেষকরা।এমনকি ভবিষ্যতে এটি ব্যবহার করে মোবাইল অপারেটররাও সেবা দিতে পারবে। আর বাংলাদেশের মতো বাজারগুলোর জন্য এই প্রযুক্তি আশীর্বাদস্বরূপ হবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

প্রযুক্তিটির জন্য প্রয়োজন হবে বিদ্যুৎ সংযোগের। এয়ারগিগ প্রযুক্তিতে প্রতিটি বৈদ্যুতিক খুঁটিতে বসানো থাকবে একটি করে ট্রান্সমিটার ইউনিট, যাকে গবেষকরা বলছেন ‘এগ’। খুঁটি থেকে খুঁটিতে সংযোগ সৃষ্টি করে ইন্টারনেটের প্রবাহ তৈরি করবে ইউনিটগুলো।যোগাযোগের জন্য ইউনিটগুলো ব্যবহার করবে উচ্চ ফ্রিকুয়েন্সির নেটওয়ার্ক। এই বিশেষ নেটওয়ার্কের সিগন্যাল যাতে চারিদিকে ছড়িয়ে না পড়ে,সেজন্য বিদ্যুতের তারের গায়ে লেপ্টে থাকবে। ফলে নেটওয়ার্ক সিগন্যালের মান ওঠানামা করবে না।

এরপর গ্রাহক পর্যায়ে সংযোগ পৌঁছে দিতে ব্যবহার করা হবে ‘ফাইভ জি’ নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি।এর মধ্যেই এটিঅ্যান্ডটি পরীক্ষা করে দেখেছে, এ প্রযুক্তির মাধ্যমে ৯০ গিগাবিট গতির সংযোগ তৈরি করা যাবে। সেটি ৫০ থেকে ১০০ মেগাবিটে ভাগ করে ঘরে ঘরে দেয়া যাবে ইন্টারনেট সেবা।

প্রযুক্তিটি নিয়ে ২০১৯ সালের মাঝামাঝি পর্যন্ত আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাবে এটিঅ্যান্ডটি। এরপরেই তারা এর বাজারজাতকরণ নিয়ে ভাববে। তবে তার আগে এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে চায় না কোম্পানিটি।